1. news@priyobanglanews24.com : PRIYOBANGLANEWS24 :
June 14, 2024, 5:56 pm

নবাবগঞ্জে ড্রেনেজ নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের প্রতিবাদে মানববন্ধন

সিনিয়র প্রতিবেদক:
  • Update Time : Wednesday, May 22, 2024
  • 103 Time View

ঢাকার নবাবগঞ্জে ড্রেনেজ কাজে নিম্মমানের সামগ্রী ব্যবহারের প্রতিবাদে মানববন্ধন করা হয়েছে। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলার প্রাণকেন্দ্র কায়কোবাদ চৌরাস্তা সংলগ্ন সড়কে ঘন্টাব্যাপী দাঁড়িয়ে এ মানববন্ধন করেন স্থানীয় ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। মানববন্ধকারীদের অভিযোগ সদর কায়কোবাদ চৌরাস্তা থেকে নবাবগঞ্জ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় হইতে ইছামতী নদী পর্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কটির পাশ দিয়ে জলাবদ্ধতা নিরসনে নির্মিত ড্রেনেজ কাজে নিম্মমানের সামগ্রী ব্যবহার করছেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। পাশাপাশি কাজের ধীরগতির অভিযোগও তুলেন তারা।।

মানবন্ধনকারীরা জানান, এ রাস্তাটি খুবই জনগুরুত্বপূর্ণ। রাস্তাটি দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ নানা প্রয়োজনে চলাচল করে। নবাবগঞ্জ থানাসহ বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক, সাব-রেজিস্ট্রি অফিস, মাধ্যমিক ও প্রাথমিক স্কুল, আনসার ভিডিপি ক্যাম্প, দোহার-নবাগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ স্থানীয়দের এ সড়কটি দিয়েউ চলাচল করতে হয়। জনগুরুপূর্ণ এ সড়কটি সামান্য বৃষ্টি হলেই এ রাস্তায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে জনদূর্ভোগের সৃষ্টি হয়। এতে করে সড়কটিতে চলাচলে হাটুপানি জমে চলাচলের ব্যাঘাত ঘটে। জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্রেনেজ কাজের জন্য এলজিইডির আওত্বায় প্রায় ৫৬ লাখ টাকার টেন্ডার হয়। কাজের দায়িত্ব পান মোহাম্মদ ইউনুছ এন্ড ব্রাদার্স প্রাইভেট লিমিটেড নামে একটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। গত বছর ৫ নভেম্বর শুরু হয়ে কাজটি আগামী মাসের ৫ তারিখের মধ্যে শেষ করার কথা। তবে এখনো সিংহভাগ কাজ বাকি রয়েছে। সরেজমিনে দেখা যায় কাজের অনেক ধীরগতি এবং অনেক নিম্মমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ চলছে।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী উপজেলার সদর কলাকোপা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইব্রাহিম খলিল বলেন, কাজের ক্ষেত্রে ঠিকাদারের গাফিলতি রয়েছে এবং খুবই নিম্মমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করছেন। যেহেতু জনদূর্ভোগ লাঘবের জন্য এ উন্নয়ন কাজ করা হচ্ছে। তাই কাজটি যাতে দ্রুত ও টেকসই হয় এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

নবাবগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম বলেন, জনগণের জন্য সরকার লাখ লাখ টাকা ব্যয় করছে অথচ ঠিকারদার তার লাভের জন্য নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহার করছে। আমি ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে বলবো এসব নিম্মমানের সামগ্রী দিয়ে ড্রেনেজ কাজ করা যাবে না। এসব বন্ধ করা হোক।

এ সময় স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা সহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ এ কাজের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং ভালমানের সামগ্রী দিয়ে টেকসই কাজ করার জন্য ঠিকাদারের প্রতি দাবী জানান।

এব্যাপারে মোহাম্মদ ইউনুছ এন্ড ব্রাদার্স প্রাইভেট লিমিটেড ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধীকারী মো. হৃদয় জানান, আমি বিশেষ কারনে কাজের স্থলে যেতে পারিনি অন্য একজনকে দায়িত্ব দিয়েছি। নিম্মমানের সামগ্রী ব্যবহার করে থাকলে তা চেঞ্জ করে দিবো। কাজের ধীরগতির বিষয়ে বলেন, ড্রেনেজ কাজে একটু সময় লাগে না হলে কাজটি টেকসই হয় না।

নবাবগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী জুলফিকার হক চৌধুরী বলেন, নিম্মমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করছে এমনটা অভিযোগ স্থানীয়রা আমাকে ফোনে জানিয়েছেন। আমি তাৎক্ষনিকভাবে উপসহকারি প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান ফকিরকে কাজের স্থলে পাঠিয়েছিলাম। নিম্মমানের সামগ্রী সরিয়ে নেওয়া জন্য বলা হয়েছে। নিম্মমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করার সুযোগ নেই।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

More News Of This Category