1. news@priyobanglanews24.com : PRIYOBANGLANEWS24 :
শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন

‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’ ফেসবুক পেজে গৃহবধুর অভিযোগে পুলিশ সদস্য গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২০ মে, ২০২১
  • ২১৬০ বার দেখা হয়েছে।

ভার্চুয়াল জগতে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ পুলিশের উদ্যোগে চালু হওয়া ‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’-এর ফেসবুকে পেজে অভিযোগ করে প্রতিকার পেলেন ঢাকার দোহার উপজেলার এক গৃহবধু। ওই গৃহবধুর অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (২০ মে) অভিযুক্ত সাইফুল ইসলাম নামে এক পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে দোহার থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত সাইফুল ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা থানায় পুলিশ কনস্টেবল পদে কর্মরত আছেন। সে দোহার উপজেলার নারিশা পশ্চিমচর গ্রামের নাসির উদ্দিনের ছেলে।

ভুক্তভোগী ওই গৃহবধু জানান, বিগত তিন বছর আগে স্কুলে পড়াশোনা করা অবস্থায় দোহারের কবি নজরুল উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের বাড়িতে প্রাইভেট পড়তেন। ওই সময় ওই শিক্ষকের ছোটভাই পুলিশ কনস্টেবল সাইফুল ইসলামের সাথে তাঁর পরিচয়। পরিচয়ের সুযোগে মোবাইল থেকে সাইফুল তাঁর বেশকিছু ব্যক্তিগত ছবি ও খোলামেলা অবস্থার ভিডিও নিয়ে নেয়।

গৃহবধু এই প্রতিবেদককে বলেন, সেইসময় ওই ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে তাঁর সাথে প্রেমের সম্পর্ক করতে বাধ্য করে সাইফুল। এরপর সম্পর্কের একপর্যায়ে ইমুতে ভিডিও কলে কথা বলার সময় খোলামেলা অবস্থায় আমার অজান্তে আমার ভিডিও সে ধারণ করে রাখে। সেগুলো দেখিয়ে আমার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করার চেষ্টা করে সাইফুল। আমি আমার বান্ধবীদের মাধ্যমে তখন জানতে পারি সাইফুল এভাবে একাধিক মেয়ের সাথে প্রতারণা করেছে। বিষয়টি আমি বুঝতে পেরে কৌশলে তাঁর সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেই। প্রায় এক বছর আমাদের সাথে যোগাযোগ একেবারে বন্ধ থাকে। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুর দিকে পারিবারিকভাবে আমার বিয়ে হয়ে গেলে নতুন করে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে সাইফুল। তারপর সে আমার নাম ও ছবি ব্যবহার করে একটি ফেসবুক আইডি খুলে সেখান থেকে আমার বিভিন্ন বিভিন্ন অশালীন ছবি ও ভিডিও এডিট করে আমার স্বামীর মোবাইলে পাঠাতে থাকে। এভাবে নামে-বেনামে কয়েকটি আইডি থেকে সে আমাকে সামাজিক ও পারিবারিকভাবে হেয় করতে থাকে। আমার স্বামী আমাকে মানসিকভাবে সহযোগিতার করার কারনে আমি তাঁর মাধ্যমে ‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’ এর কথা জানতে পারি। তাঁর পরামর্শে আমি ওই ফেসবুক পেজের ম্যাসেঞ্জারে বিষয়টি জানালে আমার সাথে ফোনে কথা বলেন ‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’-এর টিম। তাঁরা প্রথমে দোহার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি পরবর্তীতে মামলা করার পরামর্শ দেন এবং দোহার থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন মামলা গ্রহণের।

গত ১৯ মে আমি বাদি হয়ে পুলিশ কনস্টেবল সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে দোহার থানায় একটি মামলা দায়ের করি। ওই মামলার পর দোহার থানা পুলিশ ফরিদপুর থেকে সাইফুলকে গ্রেপ্তার করেন।

‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’-এ অভিযোগ করে দ্রুত প্রতিকার পেয়ে আত্মবিশ্বাসী ওই গৃহবধু বলেন, কখনো ভাবিনি পুলিশ এত সহজে একজন পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নিবে। আমি চাই এমন ঘটনায় ভুক্তভোগী অনেক নারী রয়েছেন তাঁরা নির্ধিধায় ‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’-এর সহযোগিতা গ্রহণ করবেন। পুলিশের এমন উদ্যোগের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ওই গৃহবধু।

দোহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তফা কামাল বলেন, ভুক্তভোগী মেয়েটি ‘পুলিশ সাইবার সাপোর্ট ফর উইমেন’-এর ফেসবুক পেজে বিষয়টি জানালে সেখান থেকে আমাদের নির্দেশনা দেয়া হয়। ওই গৃহবধুর মামলার ভিত্তিতে ফরিদপুর থেকে বৃহস্পতিবার সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে দোহার থানায় নিয়ে আসা হয়। শুক্রবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

এখান থেকে আপনার সোস্যাল নেটওয়ার্কে শেয়ার করুন

Leave a Reply

ক্যাটাগরির আরো খবর
© এই ওয়েবসাইটি প্রিয়বাংলা২৪নিউজ.কম দ্বারা সংরক্ষিত।
পিবি লিংক এর একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান