1. news@priyobanglanews24.com : PRIYOBANGLANEWS24 :
  2. sujitpauldhaka@gmail.com : Sujit Kumer Paul :
রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০, ০৭:১১ অপরাহ্ন

কর্মগুণেই অনন্য পুলিশ কর্মকর্তা মাছুম আহাম্মদ

নিজস্ব প্রতিবেদক। প্রিয়বাংলা নিউজ২৪
  • আপডেট সময়ঃ শনিবার, ২৭ জুন, ২০২০
  • ৯৩০ জন নিউজটি দেখা হয়েছে।

মাছুম আহাম্মদ ভূঞা। সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)-এর উপ-কমিশনার (ডিসি)। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের ধনাশী গ্রামের আবদুল খাবির ভূঞা’র ছেলে। ঢাকা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন অন্তত তিন বছর। ঢাকা জেলায় আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, জনসাধারনের ন্যায় বিচার নিশ্চিতকরণ, মাদক বিরোধী অভিযানে বিশেষ ভূমিকা পালন করেন চৌকস এই পুলিশ কর্মকর্তা। অর্জন করেছেন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সহ সুশীল সমাজ, ব্যবসায়ী, মিডিয়াকর্মী, পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্য সহ সাধারণ মানুষের আস্থা এবং ভালবাসা।

জানা যায়, ১৯৯৪ সালে শিবপুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ১৯৯৬ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ হতে অত্যন্ত কৃতিত্বের সাথে এইচএসসি পাশ করার পর মাছুম আহাম্মদ ভর্তি হন দেশ সেরা বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগ হতে স্নাতক (সম্মান) ও মাস্টার্স এ মেধা তালিকায় ২য় স্থান অর্জন করেন মেধাবী এই পুলিশ কর্মকর্তা। কর্মজীবন শুরু করেন নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে শিক্ষকতার মাধ্যমে। দেশ সেবার ব্রত নিয়ে ২৫তম বিসিএস-এর মাধ্যমে এএসপি হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ এ যোগদান করেন মাছুম আহাম্মদ ভুঞা। তার স্ত্রী রেবেকা শারমিন পেশায় একজন চিকিৎসক।

চাকরি জীবনে তিনি অনেক গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত থেকে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০৯-১০ সালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন পুলিশ এর প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। চাকরির পাশাপাশি তিনি ব্রিটিশ সরকারের অত্যন্ত সম্মানজনক ‘Chevening Scholarship 2010’ এর আওতায় University of York হতে Applied Human Rights বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। এরপর ২০১২ সালে নড়াইল জেলার সদর সার্কেলের এএসপি হিসেবে যোগদান করেন। ২০১২ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৪-২০১৫ সালে তিনি জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন MINUSTAH এর অধীন হাইতি তে Individual Police Officer (IPO) হিসেবে হাইতি জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠান ও হাইতি ন্যাশনাল পুলিশ এর capacity building কার্যক্রমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। এছাড়া তিনি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স এর ইউএন এ্যাফেয়ার্স এ দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৭ সালের ৬ জুলাই তিনি বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী জেলা ঢাকা জেলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ২০১৮ সালের নভেম্বরে পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত হন মাছুম আহাম্মদ। সবশেষ গত ২২ জুন ২০২০ এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে তাকে ডিএমপির উপ-কমিশনার (ডিসি) হিসেবে পদায়ন দেওয়া হয়। দীর্ঘ প্রায় ৩ বছর ঢাকা জেলায় কর্মরত থাকা অবস্থায় নিজের দক্ষতা, যোগ্যতা ও সততার মাধ্যমে নিজেকে একজন যোগ্য পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবেই প্রমাণ করেছেন তিনি।

ঢাকা জেলাকে অপরাধমুক্ত করার লক্ষে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন মাছুম আহাম্মদ ভূঞা। ঢাকা জেলার প্রাক্তন পুলিশ সুপার (বর্তমান জয়েন্ট কমিশনার (সদর), ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ, ঢাকা) শাহ মিজান শাফিউর রহমান এর দিকনির্দেশনায় ঢাকা জেলার মহাসড়ক কেন্দ্রিক অপরাধ কমানোর পাশাপাশি সার্বিক আইন-শৃংখলা রক্ষার্থে সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশ পুলিশের অন্যতম সর্বাধুনিক সিসিটিভি প্রজেক্ট (ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক, নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়ক ও বাইপাইল-আশুলিয়া সড়ক) এর প্রকল্প পরিচালক হিসেবে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেন মাছুম আহাম্মদ। প্রকল্পটি ২০১৮ সালের ১৩ জুন তৎকালীন ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী উদ্বোধন করেন। ওই প্রকল্পের ফলে বর্তমানে ঢাকা জেলার ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক, আমিনবাজার-নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়ক, বাইপাইল হতে আশুলিয়া বাজার সড়কে রোড ডাকাতি, ছিনতাই উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাসসহ ওই সড়ক-মহাসড়কে অবস্থিত অসংখ্য গার্মেন্টস কারখানা, শিল্প-প্রতিষ্ঠান, ইপিজেড ও ফিলিং স্টেশন সমূহের নিরাপত্তা বিধান এবং সড়ক দুর্ঘটনার সংখ্যা প্রায় শূণ্যের কোটায় নেমে এসেছে।

এছাড়া দেশব্যাপি আলোচিত আন্তঃজেলা ডাকাতদল ‘লুঙ্গি বাহিনী’র ২৩ ডাকাত গ্রেপ্তারসহ কেরানীগঞ্জ মডেল, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ, নবাবগঞ্জ ও দোহার থানা এলাকার অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ ও চাঞ্চল্যকর মামলার রহস্য উদঘাটনে বিশেষ ভূমিকা পালন করেন ঢাকা পুলিশের চৌকস এই কর্মকর্তা। সবশেষ ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে দোহার উপজেলার জয়পাড়া বাজারের ৫টি দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা দ্রুত সময়ের মধ্যে রহস্য উদঘাটন ও আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ২০ জন সদস্য শনাক্ত করে পুলিশ। দ্রুত সময়ের মধ্যে রহস্য উদঘাটন ও কয়েকজন ডাকাত গ্রেপ্তার করায় সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের কাছে আস্থা অর্জন করেন পুলিশ প্রশাসন। এই ডাকাতির রহস্য উদঘাটনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে এই পুলিশ কর্মকর্তার দক্ষতা।

এছাড়া মাছুম আহাম্মদ ভূঞা ঢাকা জেলার ডিএসবি’র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার থাকাবস্থায় জাতীয় স্মৃতিসৌধ কেন্দ্রীক ভিআইপি ও ভিভিআইপিগণদের নিরাপত্তা পরিকল্পনা প্রণয়নসহ মার্চ/২০১৮ ব্যাচে টিআরসি পদে নিয়োগ-এ মুক্তিযোদ্ধা কোটায় কনস্টেবল পদে চাকরি লাভের জন্য ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ প্রস্তুত চক্রের সদস্যদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

অপরাধ দমনের পাশাপাশি অধীনস্ত কর্মকর্তাদের দুর্ভোগ লাঘবে কাজ করেছে মানবিক এই পুলিশ কর্মকর্তা। ঢাকা জেলার কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ির কার্যক্রম পূর্বে কলাতিয়া ইউনিয়ন পরিষদ এর জরাজীর্ণ একটি ভবনে অত্যন্ত নিরাপত্তাহীনতার মাঝে পরিচালিত হত। দায়িত্বরত অফিসার ও ফোর্সদের সার্বিক নিরাপত্তা ও আবাসন দুর্ভোগের বিষয়টি চিন্তা করে ২০১৮ সালের ৩ অক্টোবর কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন কলাতিয়া ইউনিয়নে ৫০ শতাংশ অনুদানকৃত জমিতে সম্পূর্ণ বেসরকারি অনুদানে কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ির জন্য দৃষ্টিনন্দন ব্যারাক কাম অফিসকক্ষ ও মসজিদ প্রতিষ্ঠায় অগ্রগন্য ভূমিকা পালন করেন।

এছাড়া নিজস্ব কোন অফিস এবং আবাসন না থাকায় অফিসার-ফোর্সদের দুর্ভোগ লাঘব ও কাজে গতিশীলতা আনয়নে তৎকালীন ঢাকা পুলিশ সুপার নিদের্শনায় ও তত্ত্বাবধানে ২০১৯ সালের ১১ মে কদমতলী মোড়ে আগানগর ইউনিয়ন পরিষদের পরিত্যাক্ত ভবনটি সংস্কারপূর্বক ট্রাফিক বিভাগ (দক্ষিণ), ঢাকার অফিস উদ্বোধন করা হয়। অফিসটি করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করেন মাছুম আহাম্মদ ভূঞা।

পাশাপাশি পেশাগত দায়িত্বের বাইরে গিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নবপ্রজন্মের মাঝে তুলে ধরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিকশিত করার প্রয়াসে দেশবরেণ্য খ্যাতনামা লেখকদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও ইতিহাস সমৃদ্ধ লেখনী এবং মুক্তিযুদ্ধের দুর্লভ ৪৮৪টি আলোকচিত্র সম্বলিত মুক্তিযুদ্ধের প্রামাণ্য সংকলন ‘গৌরবময় স্বাধীনতা’ গ্রন্থটি ঢাকা জেলা পুলিশ কর্তৃক গত ২০১৮ সালের ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে জাতীয় স্মৃতিসৌধে প্রকাশিত হয়। বহুল আলোচিত ও প্রশংসিত গ্রন্থটির সম্পাদনার গুরুদায়িত্ব পালন করেন মাছুম আহাম্মেদ। এছাড়া স্মরণ ৩য় সংখ্যা ‘দীপ্ত’ প্রভৃতি স্মরণিকার সম্পাদনাও করেন তিনি।

অসাধারণ পেশাদারিত্ব ও প্রশংসনীয় কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৬ সালে ‘IGP Exemplary Good Services Badge’ ও ২০১৮ সালে President Police Medal (PPM) সেবা লাভ করেন দক্ষ, মেধাবী এই পুলিশ কর্মকর্তা।

এই নিউজটি সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই ক্যাটাগরির আরও নিউজ
কপিরাইট © ২০১৯-২০২০
পিবি লিংক এর একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান